Select Page

করোনাভাইরাস সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় জাতীয় সংসদের তিনটি আসনের উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণের তারিখ পরিবর্তন ও ১৬৩টি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন। আজ বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশনের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

জাতীয় সংসদের তিনটি আসন কুমিল্লা-৫, ঢাকা-১৪ ও সিলেট-৩ এ উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণ হওয়ার কথা ছিল ১৪ জুলাই। তারিখ পরিবর্তন করায় এখন এই আসনে ভোট হবে ২৮ জুলাই। তবে লক্ষ্মীপুর-২ আসনের উপনির্বাচন ২১ জুন যথাসময়ে অনুষ্ঠিত হবে।

আরো পড়ুন– সিলেটে গতকালের ভূমিকম্পে বিদ্যালয়ের ভবনে ফাটল

আর ১৬৩টি ইউনিয়ন পরিষদের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। এখানে আগামী ২১ জুন ভোট হওয়ার কথা ছিল। এ ছাড়া নির্বাচন কমিশনের তফসিল ঘোষিত ১১টি পৌরসভার মধ্যে ৯টির ভোট স্থগিত করা হয়েছে। দিনাজপুরের সেতাবগঞ্জ ও ঝালকাঠি পৌরসভার ভোট যথাসময়ে হবে।

স্থগিত হওয়া ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে আছে বাগেরহাটের ৬৮টি, খুলনার ৩৪টি, সাতক্ষীরার ২১টি, নোয়াখালীর ১৩টি, চট্টগ্রামের ১২টি এবং কক্সবাজারের ১৫টি।
২১ জুন মোট ৩৬৭টি ইউনিয়ন পরিষদের ভোট অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। ১৬৩টি স্থগিত হলেও বাকি ২০৪টিতে ভোট যথাসময়ে হবে। ভোট স্থগিত হওয়া এলাকাগুলোয় স্থানীয় সরকারের সব ধরনের নির্বাচনও স্থগিত থাকবে। উপনির্বাচনের

নির্বাচন কমিশনের বৈঠক শেষে কমিশনের সচিব হুমায়ুন কবীর খোন্দকার সাংবাদিকদের এসব কথা জানান। করোনা সংক্রমণের মধ্যে ভোটগ্রহণ হলে সেসব এলাকায় যদি সংক্রমণ বেড়ে যায় তাহলে এর দায় কে নেবে জানতে চাইলে ইসি সচিব কোনো উত্তর না দিলেই চলে যান।